১৯৫ জনের তাৎক্ষণিক চাকরি, অপেক্ষায় কয়েকশ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:৫৪ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯ | আপডেট: ১:৫৪:পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে এলআইসিটি আয়োজিত মেলায় তাৎক্ষণিকভাবে চাকরি পেয়েছেন ১৯৫ প্রার্থী।এই চাকরিগুলো দিয়েছে যশোরের শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের দশ প্রতিষ্ঠান।

ওই দশ প্রতিষ্ঠান ছাড়াও ঢাকা ও ঢাকার বাইরে থেকে অংশ নেওয়া আরও অন্তত অর্ধশত প্রতিষ্ঠানে চাকরির অপেক্ষায় রয়েছেন কয়েকশো তরুণ-তরুণী।

লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্ন্যান্স প্রোজেক্টের কমিউনিকেশন স্পেশালিস্ট হাসান বেনাউল ইসলাম বলেন, চাকরি মেলায় যশোর সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের ১০ প্রতিষ্ঠানই শুধু তাৎক্ষণিক নিয়োগপত্র দিয়েছে। এছাড়া অন্য যেসব প্রতিষ্ঠান, সেগুলো জীবন বৃত্তান্ত বাছাই করে তাদের যে নিয়োগ প্রক্রিয়া তা সম্পন্ন করবে। তাতে কয়েকদিন সময় লাগবে।সেসব প্রতিষ্ঠান চাকরির বিষয়টি নিশ্চিত করলে পরে জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

দেশে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর আইটি-আইটিইএস খাতে চাকরি দিতে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং বা বাক্যর সহযোগিতায় মেলাটি অনুষ্ঠিত হয়।

মেলায় ১০ হাজারেরও বেশি নিবন্ধন করে, যেখানে জীবনবৃত্তান্ত জমা পড়ে পাঁচ হাজার।সকালে চাকরি মেলা উদ্বোধনের পর থেকেই চাকরিপ্রত্যাশীর ভিড়ে মুখরিত হতে থাকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়।

সকালে মেলার উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রবিষয়ক পরিচালক প্রফেসর মো. শরীফ হাসান লিমন, মেলার বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বয়কারী সহযোগী অধ্যাপক মো. এনামুল হক এবং এলআইসিটি প্রকল্প পরিচালক রেজাউল করিম, এলআইসিটি প্রকল্পের কম্পোনেন্ট টিম লিডার সামি আহমেদ, অগমেডিক্স বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর রাশেদ মুজিব নোমান ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

মেলায় ডব্লিউ-থ্রি ইঞ্জিনিয়ার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আয়েশা সিদ্দিকা ‘ক্যারিয়ার ইন আইসিটি আউটসাইট ঢাকা’ বিষয়ক সেশন পরিচালনা করেন। আর কাজী আইটির সিইও মাইক কাজীর সঞ্চালনায় পরিচালিত হয় ‘কাজী আইটি রিক্রুটমেন্ট আওয়ার’ শীর্ষক আরেকটি সেশন।চাকরি মেলা শেষ হয় বিকেল পাঁচটায়।