২০১৮ সাল হতে চলেছে পৃথিবীর চতুর্থতম উষ্ণ বছর: জাতিসংঘ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪:১৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩০, ২০১৮ | আপডেট: ৪:১৬:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩০, ২০১৮
ছবিঃ সংগৃহিত

টিবিটি বিস্ময়কর পৃথিবীঃ ২০১৮ সাল হতে চলেছে পৃথিবীর চতুর্থতম উষ্ণ বছর।জাতিসংঘের আবহাওয়া বিষয়ক সংস্থা এ কথা জানিয়েছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, পৃথিবীর বাড়তে থাকা তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের আনতে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ নিতে হবে। খবর আল জাজিরার।

ডব্লিউএমও প্রধান পেট্টেরি টালাস বলেন, উষ্ণায়নের এই ধারা অব্যাহত রয়েছে।

প্রতিবেদন অনুসারে, গত ১০ মাস ধরে বৈশ্বিক তাপমাত্রা শিল্প বিপ্লবের আমলের তুলনায় প্রায় ১ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি ছিল।

টালাস বলেন, এটা আবারো বলা উচিত যে, আমরাই প্রথম প্রজন্ম যারা পুরোপুরিভাবে জলবায়ু পরিবর্তন বুঝতে সক্ষম হয়েছি। আর আমরাই হয়তো শেষ প্রজন্ম যাদের এ বিষয়ে কিছু করার সক্ষমতা রয়েছে।

তিনি বলেন, বায়ুমণ্ডলে জমা হওয়া গ্রিন হাউজ গ্যাসের পরিমাণ অতীতের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। এই গ্রিন হাউজ গ্যাসই জলবায়ু পরিবর্তনের প্রধান চালক। এই শতকের শেষ দিকে তাপমাত্রা ৩-৫ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএমও) বলেছে , বিগত ২২ বছরের মধ্যে ২০ বছরই পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি উষ্ণ বছরের তালিকায় স্থান পেয়েছে। আর এর মধ্যে ২০১৮ সাল হতে যাচ্ছে ইতিহাসের চতুর্থতম উষ্ণ বছর।

ডব্লিউএমও বলেছে, এর মানে হচ্ছে, বিগত চার বছর-২০১৫, ২০১৬,২০১৭ ও ২০১৮ সাল হচ্ছে একই ধারাবাহিকতায় ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি উষ্ণতম চারটি বছর

ডব্লিউএমও প্রধান বলেন, আমরা যদি প্রচলিত ফসিল জ্বালানি ব্যবহার অব্যাহত রাখি তাহলে তাপমাত্রার নিশ্চিতভাবেই আরও বাড়বে।

উল্লেখ্য, আগামী সপ্তাহে পোল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সিওপি২৪ জলবায়ু সম্মেলন। প্রায় ২০০ দেশের প্রতিনিধিরা এই সম্মেলনে যোগ দেবেন। সম্মেলনটির উদ্দেশ্য হচ্ছে, ঐতিহাসিক প্যারিস জলবায়ু চুক্তির নবায়ন ও বৈশ্বিক উষ্ণায়ন কমানো।