৩৬০ ডিগ্রি বল নিয়ে তোলপাড় : এটি অবৈধ হবে তো?

প্রকাশিত: ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৫৭:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০১৮
ছবি: ভিডিও থেকে নেওয়া

ভারতের ঘরোয়া সিকে নাইডু অনূর্ধ্ব-২৩ টুর্নামেন্ট হুট করেই আলোচনায় চলে এসেছে একটি ডেলিভারির জন্য। পুরো ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে বল করে সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল হয়ে গেছেন এক অখ্যাত ভারতীয় স্পিনার। সেই বল ব্যাটে ছোঁয়ানো কঠিন বললেও কম বলা হয়। আম্পায়ার অবশ্য নজিরবিহীন বোলিং অ্যাকশনকে ‘ডেড বল’ বলে ঘোষণা করেছেন। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্ক শুরু হয়েছে। কিন্তু কী বলছ ক্রিকেটীয় আইন?

এই ঘটনার নায়কের নাম শিবা সিং। বাংলার ব্যাটিং ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে বাঁ-হাতি এই বোলারের এমন অভিনব ডেলিভারি শুধু ব্যাটসম্যানকেই নয়, অন ফিল্ড আম্পায়ারকেও ধন্দে ফেলে দেয়। রাউন্ড দ্য উইকেট বোলিং করার সময় পপিং ক্রিজের সামনে এসে ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে তারপর বল করেন শিবা। সোজা কথায় একটি নির্দিষ্ট দন্ডের চারপাশে একপাক খাওয়ার কায়দায় ঘুরে নিয়ে তারপর বল রিলিজ করে শিবা। সত্যিই আশ্চর্য এই বোলিং অ্যাকশন।

কঠিন হলেও অদ্ভূত অ্যাকশনের এই বোলিং খেলে দেন ক্রিজে থাকা বাংলার ব্যাটসম্যান। যদিও আম্পায়ার সেটিকে ‘ডেড বল’ ঘোষণা করেন। আম্পায়ারের এমন সিদ্ধান্তে উত্তরপ্রদেশের ক্রিকেটাররা প্রতিবাদ জানান। কোনো কারণ ছাড়ার আম্পায়ার কেন বৈধ বলটিকে ডেড ঘোষণা করেছেন বুঝে উঠতে না পেরে ফিল্ডাররা নিজেদের মনের প্রশ্ন দূর করতে আম্পায়ের দিকে এগিয়ে আসেন। ভাইরাল ভিডিওতে ধরা পড়েছে সেই দৃশ্য।
Add Image

SPONSORED

কিন্তু এ বিষয়ে এমসিসি বলছে, ক্রিকেটের আইনে বোলিং অ্যাকশন কেমন হবে, সেই নিয়ে কোনো ইঙ্গিত দেওয়া নেই। ফলে বোলার তার পছন্দ মতো বোলিং অ্যাকশন বেছে নিতেই পারেন। তা সে যত জটিল অ্যাকশনই হোক না কেন। এবার প্রশ্ন, সেই বোলিং অ্যাকশন কি ব্যাটসম্যানকে বিভ্রান্ত করছে?

আইসিসির আইনের ৪১.৪.১ ধারায় বলা আছে, বোলার বল করার সময় কোনো ফিল্ডার যদি স্থান পরিবর্তন করে বা করার চেষ্টা করে, সেক্ষেত্রে সেই অ্যাকশন ব্যাটসম্যানকে বিভ্রান্ত করার মধ্যে পড়বে এবং ‘ডেড বল’ বলে গণ্য হবে। বোলিং প্রান্তে দাঁড়িয়ে থাকা বোলারের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম প্রযোজ্য। আর এই সম্পূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে স্বাধীনতা পান ফিল্ড আম্পায়াররা। তাদের সিদ্ধান্তকেই চূড়ান্ত ধরে নেওয়া হয়।

আইনে আরও বলা আছে, ব্যাটসম্যান বোলারের পয়েন্ট অফ রিলিজ না বুঝতে পারলে, সেক্ষেত্রে ব্যাটসম্যান যদি আম্পায়ারকে অভিযোগ করে সেক্ষেত্রে ফিল্ডিং করা দল পেনাল্টির মুখে পড়বে। কঠিন বোলিং অ্যাকশন হলেও যদি ব্যাটসম্যানের খেলতে কোনো সমস্যা না হয়, সেক্ষেত্রে খেলা চালু থাকবে। এক্ষেত্রেও মাঠের আম্পায়ারই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

এছাড়া আম্পায়ার যদি বুঝতে পারেন যে, বোলার ক্রমাগত ব্যাটসম্যানের অসুবিধা তৈরির জন্য ঐচ্ছিকভাবে তার অ্যাকশনে পরিবর্তন আনছেন। সেক্ষেত্রে সেটি বল হিসেবে গণ্য করা হবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত নেবেন আম্পায়ার। শিবার ঘটনার ক্ষেত্রে কিছুটা এরকমই ঘটেছে। সেখানে মাঠের আম্পায়ার মনে করেছেন ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে বোলিং করায়র ব্যাটসম্যানকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। সেকারণে এই আম্পায়ার বলটিকে ‘ডেড’ বলে গণ্য করেন। যা সম্পূর্ণ সেই আম্পায়ারের নিজেস্ব সিদ্ধান্ত।