৫৩ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁস

ডয়চে ভেলের প্রতিবেদন

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:০৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৫, ২০২১ | আপডেট: ৯:০৫:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৫, ২০২১

৫৩ কোটি ৩০ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর সব তথ্য অনলাইনে ছেড়ে দিয়েছে হ্যাকাররা। এর ফলে বিশ্বের শতাধিক দেশের কোটি মানুষের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের ৫৩৩ মিলিয়ন বা ৫৩ কোটি ৩০ লাখ ব্যবহারকারীর পূর্ণ নাম, ই-মেইল ঠিকানা, ফোন নাম্বার থেকে শুরু করে প্রায় সব তথ্যই একটি হ্যাকিং ফোরামে প্রকাশ করে দেয়া হয়। সেখানে ১০৬ টি দেশের ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য রয়েছে বলে জানা গেছে। ৫৩ কোটি ৩০ লাখের মধ্যে তিন কোটি ২০ লাখ যুক্তরাষ্ট্রের, এক কোটি ১০ লাখ যুক্তরাজ্যের, ৬০ লাখ ভারতের এবং ৩৮ লাখ ১৬ হাজার ৩৩৯ জন বাংলাদেশের।

ফেসবুকের মুখপাত্র লিজ শেফার্ড ব্যবহারকারীদের যাবতীয় তথ্য ফাঁস হওয়ার খবর স্বীকার করে বলেন, ‘‘তথ্যগুলো পুরোনো, ২০১৯ সালে বিষয়টি জানা যায়। ২০১৯ সালের আগস্টে বিষয়টি আমরা জানতে পারি এবং ব্যবস্থা নিই।” তবে তথ্য নিরাপত্তা এবং সাইবার অপরাধ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এক বছর আগের তথ্য হলেও হ্যাকাররা তা ব্যবহার করে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ক্ষতি করতে পারে।

এর আগেও অনেকবার ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁস হয়েছে। ২০১৯ সালে বিশ্বের ২৬ কোটি ৭০ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁস হয়। এর এক বছর আগে ব্রিটেনের রাজনৈতিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকার বিরুদ্ধে কয়েক কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য সংগ্রহের অভিযোগ ওঠে।

গোপনীয়তা রক্ষার নীতি লঙ্ঘনের অভিযোগে ফেসবুককে পাঁচ বিলিয়ন ডলার জরিমানাও করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি)।