৫ মিনিট দেরি করায় ৩০ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকতে হলো ৪ পরীক্ষার্থীকে

প্রকাশিত: ৭:৪৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৪৯:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০১৮

নাটোরের বড়াইগ্রামে এবার মাত্র পাঁচ মিনিট পরে আসায় চার পরীক্ষার্থীকে ৩০ মিনিট কেন্দ্রের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখলেন সচিব। শুক্রবার উপজেলার বনপাড়া সেন্ট যোসেফস স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে গত সোমবার একই কেন্দ্রে পরীক্ষা শুরুর মাত্র ১০ মিনিট পর আসায় দেওশীন উচ্চ বিদ্যালয়ের চার শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অংশ নিতে দেয়া হয়নি।

অভিভাবকরা জানান, বনপাড়া বেগম রোকেয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ওই চারজন ছাত্রী ইংরেজি পরীক্ষায় অংশ নিতে সঠিক সময়েই বাড়ি থেকে বের হয়। রাস্তায় যানবাহন পেতে বিলম্ব হওয়ায় ৯টা পাঁচ মিনিটে তারা কেন্দ্রে আসে। কিন্তু গেট বন্ধ থাকায় তারা কেন্দ্রের ভেতরে ঢুকতে পারেনি। পরে অনেক অনুনয়-বিনয় করলেও দেরি করে আসায় কেন্দ্র সচিব তাদেরকে আধঘণ্টা গেটের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখেন।

এ সময় শিক্ষার্থীরা কান্নাকাটি শুরু করলে খবর পেয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা নাজমা খাতুন কেন্দ্রে এসে সচিবের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তাদের কেন্দ্রে ঢুকতে দিলেও ততক্ষণে সাড়ে ৯টা পার হয়ে গেছে।

নির্ধারিত সময়ের চাইতে কম সময় পরীক্ষা দেয়াসহ মানসিক চাপে তারা পরীক্ষা ভালো দিতে পারেনি বলে জানান তারা। তবে পরবর্তী পরীক্ষায় তাদের ক্ষতি হতে পারে এমন আশঙ্কায় শিক্ষার্থীদের নাম প্রকাশে রাজি হননি অভিভাবকরা।

বনপাড়া বেগম রোকেয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমা খাতুন বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করেছেন।
Add Image
কেন্দ্র সচিব অধ্যক্ষ লাজারুশ রোজারিওর মোবাইলে বারবার কল দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

বড়াইগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আনোয়ার পারভেজ জানান, পরীক্ষার্থীরা ৯টা ৫ মিনিটে কেন্দ্রে গিয়েছে। পরে সচিব আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ দিয়েছেন। এতে কিছুটা সময় গেছে, তাতে পরীক্ষার্থীদের তেমন ক্ষতি হওয়ার কথা না।