৭৫-এ বিয়ে, পরদিন হাসপাতালে

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:২৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২০ | আপডেট: ১২:৪৫:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২০
সংগৃহীত

গেল ১৬ জানুয়ারি কলকাতার একটি রেস্তোরাঁতে দীর্ঘদিনের বান্ধবী দোলন রায়কে বিয়ে করেন অভিনেতা দীপঙ্কর দে। পাত্রের বয়স ৭৫, আর কনের ৪৯। তাতে কোনো অসুবিধা হয়নি।

বরং বিয়ের আসরে বেশ উৎফুল্ল ছিলেন পাত্র-পাত্রী। সাদা পাঞ্জাবী পরনে বর দীপঙ্করকে তরুণ তুর্কির মতো দেখাচ্ছিল। দোলনের পরনে ছিল লাল বেনারসি। খোপায় লাল ফুল, সোনার গয়না সজ্জিত। সিঁথিতে চওড়া সিঁদুর। সবকিছু ঠিকঠাক ছিল।

কিন্তু একদিন পরেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন অভিনেতা। ১৭ জানুয়ারি, শুক্রবার সন্ধ্যায় তাকে ভর্তি করা হয়েছে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে। জানা যায়, অভিনেতার শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা চলছিল বেশ কয়েকদিন ধরে।

তবে শ্বাসকষ্টজনিত অসুবিধা থাকা সত্ত্বেও পূর্বনির্ধারিত বিয়ের অনুষ্ঠানটি বাতিল করতে চাননি দীপঙ্কর দে। ঘনিষ্ঠ কয়েকজন বন্ধুদের উপস্থিতিতে রেজিস্ট্রি করে বিয়ের সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠান সারা হয়। দোলন রায় ও দীপঙ্কর দে-র সদ্য বিবাহিত ছবি বৃহস্পতিবার রাত থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

অভিনেতার ঘনিষ্ঠজনেরা ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানায়, শুক্রবার সকাল থেকে আবারও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা শুরু হয় অভিনেতার। তাই সকালে তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান দোলন রায়।

এর পরে চিকিৎসকের পরামর্শেই ১৭ জানুয়ারি সন্ধ্যায় একটি বেসরকারি হাসপাতালের ইনটেনসিভ কার্ডিয়াক কেয়ার ইউনিট-এ ভর্তি করা হয়। অভিনেতা আপাতত পর্যবেক্ষণে রয়েছেন এবং তার স্বাস্থ্য সংক্রান্ত একাধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

বাংলা ছবি ও বাংলা ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা দীপঙ্কর দে বেশ কয়েক মাস হলো ধারাবাহিকের নিয়মিত অভিনয় থেকে বিরতি নিয়েছেন। তবে তার স্ত্রী দোলন রায় টেলিভিশনের ব্যস্ততম অভিনেত্রীদের একজন। বর্তমানে জি বাংলা-র ‘আলোছায়া’ ধারাবাহিকে নায়কের মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি।