The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

শরীয়তপুরে তিন ছাত্রকে বলাৎকারচেষ্টা, মুয়াজ্জিন গ্রেপ্তার

শরীয়তপুরে তিন ছাত্রকে বলাৎকারচেষ্টা, মুয়াজ্জিন গ্রেপ্তার

শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার সিরাজ উদ্দিন কওমি মাদরাসার তিন ছাত্রকে বলাৎকারের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে এক মসজিদের মুয়াজ্জিনের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী এক ছাত্রের বাবা শনিবার (৬ আগস্ট) রাতে গোসাইরহাট থানায় মামলা করলে মুয়াজ্জিনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার মো. রবিউল ইসলাম (২৫) বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার মরিচবুনিয়া গ্রামের তৈয়ব আলী ব্যাপারীর ছেলে। তিনি গোসাইরহাট উপজেলার দাসেরজঙ্গল বাজার বড় মসজিদের মুয়াজ্জিন। রোববার তাকে শরীয়তপুর আদালত পাঠিয়েছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী পরিবার ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গোসাইরহাটের সিরাজ উদ্দিন কওমি মাদরাসার পাশে একটি ভবনের দ্বিতীয় তলায় থাকতেন মুয়াজ্জিন রবিউল। একই যায়গায় থেকে পড়াশোনা করতো ওই তিন শিশু। গত ১০ জুলাই রাত ৩টার দিকে শিশুদের পোশাক খুলে বলাৎকারের চেষ্টা করেন রবিউল। পরেরদিন সকালে বাড়ি গিয়ে পরিবারের সদস্যদের বিষয়টি জানায় শিশুরা। পরে গোসাইরহাট থানায় মামলা করা হয়।

ভুক্তভোগীর এক বাবা বলেন, আমার শিশু ছেলেসহ আরও দুইজন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। ওই মুয়াজ্জিনের কাছে কোনো শিক্ষার্থীই নিরাপদ নয়। আমি তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

গোসাইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম সিকদার বলেন, আসামি রবিউলকেগ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ও যৌন নিপীড়ন অপরাধ আইনে মামলা করা হয়েছে। আজ দুপুরে রবিউলকে আদলতে পাঠানো হয়েছে।