The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা সোমবার, ২৩ মে ২০২২

বিচ্ছেদের পর একই হোটেলে ধানুশ-ঐশ্বরিয়া

বিচ্ছেদের পর একই হোটেলে ধানুশ-ঐশ্বরিয়া
ছবিঃ সংগৃহীত

বছরের শুরুতেই দক্ষিণী সুপারস্টার ধানুশ ও রজনীকান্তের মেয়ে ঐশ্বরিয়ার সংসার ভাঙার ঘোষণা ভক্তদের হতবাক করেছে। গত সোমবার টুইটার এবং ইনস্টাগ্রামে নিজেদের বিয়েবিচ্ছেদের কথা জানিয়েছিলেন তামিল অভিনেতা ধানুশ এবং তার স্ত্রী পরিচালক ঐশ্বরিয়া।

তারপরে ধানুশের বাবা কস্তুরী রাজা জানিয়েছিলেন, প্রাক্তন দম্পতি চেন্নাইতে নেই। হায়দরাবাদে রয়েছেন। এখন শোনা যাচ্ছে, কাজের সূত্রেই দু’জন আলাদা আলাদাভাবে শহর ছেড়েছেন। শুধু তা-ই নয়, ঘটনাচক্রে দু’জনে একই হোটেলে গিয়ে উঠেছেন হায়দরাবাদে।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, রামোজী রাও স্টুডিওতে একই হোটেলে রয়েছেন ধানুশ এবং ঐশ্বরিয়া। রজনীকান্তের বড় মেয়ে ঐশ্বরিয়া প্রেম দিবস উপলক্ষে একটি গানের ভিডিওর পরিচালনা দেবেন সেখানে। ধানুশও নাকি কোনও ছবির শুটিংয়ের জন্য সেই শহরে রয়েছেন।

যদিও তারা বিয়ে বিচ্ছেদের কথা ঘোষণা করেছেন, তাও ধানুশের বাবার দাবি, ‘তাদের বিয়ে ভাঙবে না। এটা কেবল দুই পরিবারের বিবাদের কারণে ঘটেছে। আমি ওদের সঙ্গে ফোনে ফোনে কথা বলে সব মেটানোর চেষ্টা করছি।’

অন্য দিকে সুপারস্টার রজনীকান্তও নাকি জামাইয়ের সঙ্গে দেখা করে মেয়ের ঘর বাঁচাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ধানুষ দেখা করতে রাজি হননি। সম্ভবত তিনি নাকি রজনীকান্তকে অপমান করতে চান না বলেই সাক্ষাৎ এড়িয়ে গিয়েছেন বারবার।

২০০৪ সালে রজনীকান্তের মেয়ের সঙ্গে বিয়ের পর্ব সেরেছিলেন ধানুশ। দুই ছেলে যাত্রা ও লিঙ্গার বাবা-মা এই প্রাক্তন তারকা দম্পতি। ‘ভাই রাজা ভাই’, ‘৩'-র মতো ছবির পরিচালক ঐশ্বর্য। অন্যদিকে গত দেড় দশক ধরে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম লিডিং সুপারস্টার ধানুশ। সম্প্রতি তার দেখা মিলেছে আনন্দ এল রাই পরিচালিত ‘আতরঙ্গি রে’ ছবিতে।