The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

ইতালিতে বাংলাদেশিদের জন্য সুখবরের মধ্যেও ‘শঙ্কা’

ইতালিতে বাংলাদেশিদের জন্য সুখবরের মধ্যেও ‘শঙ্কা’
প্রতিকী ছবি

দীর্ঘ চার মাস পর বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কা থেকে ইতালি প্রবেশের অনুমতি দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। শনিবার (২৮ অগাস্ট) ভ্রমণ সংক্রান্ত নতুন অধ্যাদেশ স্বাক্ষর করেছেন ইতালীর স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবের্তো স্পেরান্সা।

দেশটির কর্তৃপক্ষের সর্বশেষ জারি করা আদেশে বলা হয়েছে, যেসব ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশে আটকা পড়েছেন, তাদের মধ্যে যারা করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকার (ভ্যাকসিন) দুই ডোজ নিয়েছেন মর্মে প্রমাণপত্র প্রদর্শন করতে পারবেন তারা রেসিডেন্সি কার্ড থাকা সাপেক্ষে দেশটিতে ফিরতে পারবেন।

গতকাল রোববার জারি করা ওই আদেশে বলা হয়, আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে এই আদেশ কার্যকর হবে। পাশাপাশি এই আদেশ আগামী ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত বহাল থাকবে। এর পর বৈশ্বিক করোনা মহামারির পরিবর্তিত পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে নতুন নির্দেশনা দেওয়া হবে।

ইতালি থেকে দেশে এসে যারা দীর্ঘদিন যাবত আটকা পড়ে আছেন, এটি তাদের জন্য নিঃসন্দেহে একটি সুসংবাদ। তবে এর মাঝে একটি শঙ্কাও রয়েছে। কারণ ইতালি কর্তৃপক্ষ যেসব টিকা গ্রহণ সাপেক্ষে দেশটিতে প্রবেশ করতে দেবে, সেই তালিকায় নেই চীনের কোনো টিকা। অথচ বাংলাদেশে যারা করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন তাদের একটা বড় অংশ পেয়েছেন চীনের সিনোফার্মের টিকা।

জানা যায়, ইতালি প্রবেশের ক্ষেত্রে ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স এজেন্সি অনুমোদিত টিকা গ্রহণ করতে হবে। এটা সব দেশের জন্য বাধ্যতামূলক। অন্যদিকে, বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কার নাগরিকদের জন্য টিকার সার্টিফিকেট ছাড়াও অতিরিক্ত শর্ত জুড়ে দেওয়া রয়েছে।

শর্তগুলো হলো— ফ্লাইট উড্ডয়নের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করা পিসিআর টেস্টে করোনার অবশ্যই নেগেটিভ রিপোর্ট আসতে হবে। দেশটিতে পৌঁছার পর আরেক দফা টেস্ট করাতে হবে। এ ছাড়া ইতালিতে পৌঁছে বাধ্যতামূলকভাবে নিজ খরচে ১০ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে, যদি উপসর্গ থাকে তাহলে কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ বাড়বে।

সূত্র: ২৪ লাইভ নিউজ।