The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের রায়

‘যাবজ্জীবনের পর আর কোনো সাজা নেই’

‘যাবজ্জীবনের পর আর কোনো সাজা নেই’
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বলেছেন, যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পর আর কোনো সাজা নেই। সম্প্রতি দেশটির সর্বোচ্চ আদালত জানতে পেরেছে, কর্নাটক রাজ্যের একটি আদালত এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পর তাকে আরো ১০ বছর জেল খাটানোর নির্দেশ দিয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ডাব্লিউ ডাব্লিউ ললিতের নেতৃত্বে একটি বেঞ্চ বলেন, আজীবন কারাদণ্ড মানে কোনো ব্যক্তির সাধারণত মৃত্যু পর্যন্ত জেল। অন্য সব প্রাণীর মতন একজন মানুষের একটি মাত্র জীবন। তাহলে সারাজীবনের সাজা ভোগ করার পর তার পক্ষে আবার কিভাবে ১০ বছর কারাভোগ করা সম্ভব?

বিচারপতি ললিত ও বিচারপতি অজয় রাস্তোগির বেঞ্চ বলেছেন, আদালত যদি তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড শুরুর আগে ১০ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিতেন তাহলে তা বোধগম্য হতো। আর আইন অনুসারে একবার একজন দোষীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হলে, তার অন্যান্য অপরাধের জন্য কারাদণ্ড একই সাথে দেয়া উচিত। এটাই আইন।

আদালতে সিনিয়র আইনজীবী সিদ্ধার্থ দেবের মাধ্যমে এ বিষয়ে আবেদন করেন ভুক্তভোগী ইমরান জালাল। ইমরানকে তিনটি রায়ে যাবজ্জীবন এবং আরো পাঁচটি রায়ে তাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলায় যাবজ্জীবন সাজা ভোগ করার পর আবারো ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়ার বিষয়টি সিদ্ধার্থকে ক্ষুব্ধ করে তোলে। ফলে তিনি এ বিষয়ে আদালতে আবেদন করেন।

ভারতের আইনগত অবস্থানে মোটামুটিভাবে বলা আছে, যাবজ্জীবন সাজা মূলত কোনো দোষীয় ব্যক্তির জন্য সারাজীবনের একটি শাস্তি। এক্ষেত্রে যাবজ্জীবন সাজা ভোগ করার পর আবারো কারাগারে যাওয়ার বিষয়টি অসঙ্গতিপূর্ণ ও অযৌক্তিক।

তার ওই আবেদন শুনানিতে বিচারক বেঞ্চ একমত হয়ে বলেছেন, কেনো বন্দী তার জীবন কারাগারে কাটালে তার আর কোন সাজা কাটানোর প্রশ্নই আসে না।

সূত্র: ২৪ লাইভ নিউজ।