The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ঢাবির ২ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ঢাবির ২ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা
সংগৃহীত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) দুই শিক্ষার্থী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। পৃথক ঘটনায় আত্মহত্যার চেষ্টা করা দু’ শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে, বলে জানা যায়। বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষার্থী সূত্রে জানা যায়, তাঁদের অবস্থা কিছুটা সংকটাপন্ন রয়েছে।

জানা যায়, সোমবার (২০ জুন) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়টির রোকেয়া হলে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের এক ছাত্রী আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে ওই ছাত্রীকে ঢাকা মেডিকেলে কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে ওই ছাত্রীর আত্মহত্যার বিষয়টি আমাদের নজরে আসলে, দ্রুত তাঁর চিকিৎসারা ব্যবস্থা করা হয়।

ওটি (পেশাগত থেরাপি) দেওয়ার পর ক্যাবিনে এনে তার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এখন তার অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হবে। আমরা চেষ্টা করছি সার্বক্ষণিক তার পাশে থাকার।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে স্টোরি দেন ওই শিক্ষার্থী যেখানে লিখেন, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়। এটা আমার কর্মফল এবং বোকামির ফল। অনেককেই অনেকভাবে কষ্ট দিয়েছি। ঝামেলায় ফেলেছি, বিরক্ত করেছি। মাফ করে দিবেন সবাই।’

এদিকে পৃথক আরেকটি ঘটনায় সোমবার (২০ জুন) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে রাজধানীর একটি আবাসিক হোটেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন গণিত বিভাগের এক ছাত্র। পরে তাঁর স্ট্যাটাসের জের ধরে, লোকেশন ট্রাক করে তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রের অবস্থাও এখন কিছুটা সংকটাপন্ন রয়েছে। এর আগে সামাজিক মাধ্যমে তাঁর হাতে লেখা একটা চিঠির সঙ্গে যুক্ত করে স্ট্যাটাস দেন।

যেখানে তিনি লিখেন, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ কোনোভাবেই দায়ী না। নিজের ইচ্ছায় আমি আত্নহত্যা করছি, আমাকে কেউই প্রভাবিত করেনি। নিজের এ অবস্থার জন্য আমি নিজেই দায়ী। আমি এ পৃথিবীতে বসবাস করার যোগ্যতা রাখি না। দুনিয়ার সবগুলো মানুষকে অনেক জ্বালাইছি, আমি চাই না আল্লাহ আমাকে এ সুযোগ আবার দেন।

আমি অনেকগুলা ঘুমের ট্যাবলেট খাইছি, আমি কোথায় আছি কাউকে বলি নাই। তাও কেউ আমার খোঁজ কোনোভাবে জানলেও আমাকে হসপিটালে না নেয়ার অনুরোধ করছি। আমার মতো দুই-একটা পাগল পৃথিবীতে না থাকলে পৃথিবীর কারো কোনো ক্ষতি হবে না।’