The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১

বোর্ডবৃত্তি প্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি মওকূফ হওয়ায় স্বস্তির নিঃশ্বাস হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের

বোর্ডবৃত্তি প্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি মওকূফ হওয়ায় স্বস্তির নিঃশ্বাস হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের

মোঃ মিরাজুল আল মিশকাত, হাবিপ্রবি প্রতিনিধি: হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) অধ্যায়নরত বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত (উচ্চ-মাধ্যমিক) শিক্ষার্থীদের ক্রেডিট ফি মওকুফ করে অফিস আদেশ জারি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাবিপ্রবির রেজিস্ট্রার বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. মোঃ ফজলুল হক । বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. কামরুজ্জামানের অনুমোদনক্রমে ও রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত এক অফিশ আদেশের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

অফিস আদেশে বলা হয়, " উপযুক্ত বিষয়ের আলোকে সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জানানো যাচ্ছে যে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রণালয়ের স্মরকনং - ৩৭.০০.০০০০.০৭১.০৮.০০১.০৫.১১২ তারিখ ০৪/০২/২০১৬ এর নীতিমালা, স্মারকনং-৩৭.০০.০০০০.০৭১.০৮.০০১.০৫.৪০২ তারিখ ১১/০৫/২০১৫ স্মারক নং - ৩৭.০০.০০০০.০৭১.০৮.০০১.০৫.৭৪১ তারিখ ১৪/০৮/২০১৪ এবং মহাপরিচালক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, বাংলাদেশ, ঢাকা এর স্মরক নং- ০৩৭.০২.০০০০.১১৭.৩১.০০৬.১২-২৩৬/৯; তারিখ -০৫/১১/২০১৯ অনুযায়ী উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে মেধাবৃত্তি ও সাধারণ বৃত্তিপ্রাপ্ত এ বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক কোর্সে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য এনরোলমেন্টের সময় প্রদত্ত কোর্সের ক্রেডিট ফি'র টাকা নিম্নবর্ণিত শর্তসাপেক্ষে মওকূফ করা হলো।

শর্তাবলী : 
 
১। এ আদেশ ২০২০ সালের জানুয়ারী-জুন সেমিস্টার হতে কোর্সের মেয়াদকালীন ৪-৫ বছর সময়ের জন্য প্রযোজ্য হবে। 

২। এ আদেশ কেবলমাত্র নিয়মিত পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। 

৩। সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের সদাচরণ, প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত উপস্থিতি পাঠোন্নতি সাপেক্ষে শিক্ষর্থীরা এ ক্রেডিট ফি মওকুফের সুবিধা পাবে। কোনভাবেই অনিয়মিত শিক্ষার্থীরা এ সুবিধা পাবে না। 

৪। এ আদেশ মোতাবেক কোর্সের ত্রেডিট-ফি মওকুফ সুবিধা পেতে হলে শিক্ষার্থীদের বোর্ডবৃত্তির প্রাপ্তির সনদসহ সংশ্লিষ্ট ডিন বরাবর আবেদন করতে হবে।

৫) প্রয়োজনবোধে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই আদেশ সংশোধন, প্রয়োজনে বাতিল করতে পারবে।

বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেডিট ফি মওকূফের ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বলেন," যেহেতু বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেডিট ফি মওকুফ করার ব্যাপারে সরকারি নির্দেশনা ছিলো। সেহেতু আমরা উক্ত বিষয়ে দ্রুতই সিদ্ধান্ত নিতে পেরেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মহোদয় এ ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছিলেন বলেই অতি অল্প সময়ের মাঝেই এ বিষয়ে অফিস আদেশ জারি করা সম্ভব হয়েছে "।

উচ্চ-মাধ্যমিক পরীক্ষায় বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি মওকুফ করায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের শিক্ষার্থী নাজিম আহমেদ বলেন, " মাননীয় উপাচার্য মহোদয় যে শিক্ষার্থীবান্ধব তিনি তাঁর কাজের মাধ্যমে তা প্রমাণ করে দিলেন। অনেকদিন ধরেই আমাদের দাবি ছিল যারা এইচএসসি পরীক্ষায় বোর্ড বৃত্তি পায় তাদের কোর্স ফি যেন মওকুফ করা হয়।শিক্ষাবোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের কোর্স ফি মওকুফ করার নির্দেশনা থাকলেও বিগত প্রশাসন এই ব্যাপারে এতদিন উদাসীন ছিল। বর্তমানে আমাদের দাবী মেনে বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের কোর্স ফি মওকুফ করায় আমরা অত্যান্ত আনন্দিত। আমাদের যৌক্তিক দাবিটি হাবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতি সুন্দরভাবে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে প্রশাসনের কাছে তুলে ধরেছে। তাই বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি হাবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির প্রতি। আশা করি হাবিপ্রবিসাস শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি আগামীতে আরো বেশি বেশি তুলে ধরবে "।

গত ৩০ জুলাই হাবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতি কর্তৃক আয়োজিত লাইভ অনুষ্ঠান ‘সেঁতুবন্ধনে’ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এমন সিদ্ধান্ত নেয় বলে জানা যায়।


আরও পড়ুন