The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১

শিরোনাম
  • ভারী বৃষ্টিপাত ও বন্যায় মধুখালীর সবজি বাজারে আগুন সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা ও সহিংসতার প্রতিবাদে বাগেরহাটে হিউম্যান রাইটস্ ডিফেন্ডার্স ফোরামের মানববন্ধন​​​​​​​ মুরাদনগরে সিএনজি চালক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আরও ৩ জন গ্রেফতার সাম্প্রদায়িক হামলা ও ধর্মীয় সহিংসতার প্রতিবাদে মাভাবিপ্রবিতে মানববন্ধন পাপুয়া নিউগিনিকে হারিয়ে সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ নানা আয়োজনে বাউবি’র ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত পদ্মায় হঠাৎ পানিবৃদ্ধিতে রাজবাড়ী শহর প্রতিরক্ষা বাঁধে আবারও ভাঙন রাজবাড়ীতে নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ থেকে পড়ে রাজমিস্ত্রির মৃত্যু স্বরণকালের ভয়াবহ বন্যায় নীলফামারী-লালমনিরহাট যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন কোয়ারিতে কয়লা উত্তোলন করতে গিয়ে সুনামগঞ্জে কিশোর নিহত
  • সংসদেও চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩২ করার দাবি

    সংসদেও চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩২ করার দাবি
    ফাইল-ছবি

    করোনায় প্রায় দেড় বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকা এবং সরকারি অনেক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় সরকারি চাকরি নিয়োগও তেমন একটা হয়নি। এমন অবস্থায় চাকরিপ্রত্যাশীরা সাথে তাল মিলিয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদেরও স্থায়ীভাবে বয়সসীমা ৩২ বছর করার দাবি জানিয়েছেন।

    বৃহস্পতিবার একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে এ দাবি করেন তিনি।

    জিএম কাদের বলেন, করোনার কারণে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে স্বাভাবিক কাজকর্ম বন্ধ ছিল। এখন মাত্র এক বছরের জন্য প্রার্থীদের সর্বোচ্চ বয়সসীমার ক্ষেত্রে এককালীন ২২ মাস ছাড় দেওয়া হয়েছে। মানে শুধু এ বছরের জন্য। তাও বিসিএস ক্যাডারকে বাদ দিয়ে।

    তিনি আরও বলেন, করোনার কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ রাখার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আংশিক খুলে দেওয়া হয়েছে এবং করোনা বেড়ে গেলে যেকোনো সময়ে ফের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে শিক্ষামন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়। শেষ পর্যন্ত হয়তো ২ বছর পর্যন্ত শিক্ষাজীবন ঝরে যাবে। তাহলে প্রশ্ন আসে, যারা পাস করে বেরোনোর পর ৫ বছর সময় পায় চাকরি করার জন্য। কিন্তু ২ বছর যদি চলে যায়। আর এখন শিক্ষা ব্যবস্থা বন্ধ করতে হয় তাদের পাস করতে করতেই ৩০ বছর চলে যাবে।

    জিএম কাদের বলেন, এই মানুষগুলোকে যাতে আমরা একটা সুযোগ সুবিধা দিতে পারি, এজন্য আমি সবার জন্যই চাকরির বয়স ৩২ করার দাবি জানাচ্ছি।


    সর্বশেষ

    আরও পড়ুন