The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করলে বিএনপি হবে ভালো বিরোধী দল : ড. আব্দুর রাজ্জাক

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করলে বিএনপি হবে ভালো বিরোধী দল : ড. আব্দুর রাজ্জাক
ফাইল-ছবি

 

কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক মন্তব্য করেছেন, বিএনপি যদি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ ধারণ করে এবং গণতান্ত্রিক চেতনার ভিত্তিতে গড়ে ওঠে তাহলে একটি ভালো বিরোধী দল হিসেবে গড়ে উঠবে।

তিনি বলেন, বিএনপি ধর্মান্ধ, জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের সাথে সম্পর্ক রেখে কোনোদিনই আর এদেশের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাবে না। বিএনপি দেশের একটি বড় রাজনৈতিক দল যারা সামরিক শাসন, স্বৈরাচারী কায়দায় ও গণতন্ত্রের লেবাস পড়ে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় ছিল। আমরা দেশে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও গণতান্ত্রিক চেতনার ধারক একটি বিরোধী দল চাই।।

বুধবার ঢাকায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন : কৃষিভিত্তিক অর্থনীতির রূপান্তর’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বছরব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় এ সেমিনারের আয়োজন করে।

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এবং পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

প্যানেল আলোচক হিসেবে পল্লীকর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক শহীদুর রশীদ ভূইয়া ও বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের মহাপরিচালক ড. বিনায়ক সেন বক্তব্য দেন। স্বাগত বক্তব্য দেন পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ জয়নুল বারী। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের প্রধান মো. মফিদুল ইসলাম।

ড. রাজ্জাক আরো বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে কৃষি উৎপাদনে বিস্ময়কর সাফল্য এসেছে। প্রতি শতাংশ জমিতে এখন এক মণ ধান উৎপাদিত হচ্ছে। কিন্তু কৃষির উৎপাদন যেভাবে বেড়েছে, সেভাবে প্রক্রিয়াজাত ও ভ্যালু অ্যাড করে কৃষির শিল্পায়ন না করতে পারলে কৃষিভিত্তিক অর্থনীতির রূপান্তর ঘটবে না। কৃষি প্রক্রিয়াজাত ও ভ্যালু অ্যাড করে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কৃষিপণ্যের বাজার বিস্তৃত করতে হবে। সেজন্য, কৃষিকে শিল্পায়নের সাথে আরো সম্পর্ক বাড়াতে হবে।