The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

নড়াইলের পিবি মালিডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মূল্যবান গাছ কর্তনের অভিযোগ

নড়াইলের পিবি মালিডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মূল্যবান গাছ কর্তনের অভিযোগ

হুমায়ুন কবীর রিন্টু, নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইল সদর উপজেলার পিবি মালিডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বর হতে কয়েকটি বড় মেহগিনি ও কয়েকটি জাম গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কৃপানাথ সিকদার ও সভাপতি মিন্টু মীর পরস্পর যোগসাজোশে সাবেক সভাপতি টোকন মীরের সহয়তায় গাছগুলি গোপনে বিক্রি করে দিয়েছে।

হঠাৎ করে গোপনে কয়েক লাখ টাকার গাছ কেটে রাতের আধারে সরিয়ে ফেলায় জনমনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসি বুধবার (৪আগষ্ট) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ক্ষুব্ধ এলাকাবাসি ও সাংবাদিকদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রধান শিক্ষক নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেছেন,তাকে না জানিয়ে কে বা কারা গাছ গুলি কেটে নিয়েছে। গাছ কেটে নেয়ার ঘটনায় কোন ব্যবস্থা নিযেছেন কি-না? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নিরব থাকেন প্রধান শিক্ষক। তবে গাছ কাটা হবে মর্মে পরবর্তীতে একটি রেজুলেশন করে নিবেন বলে জানান। সভাপতি মিন্টু মীরের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ ব্যাপারে কোন সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেননি।

এদিকে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির দাতা সদস্য মাসুদুর রহমান,সাবেক সভাপতি আতিয়ার রহমান,সাবেক সভাপতি মনিরুল ইসলাম সহ আরোও অনেকে জানান,কিছু দিন আগেও সভাপতির চাচা টোকন মীর বিদ্যালয়ের একটি মেহগিনি গাছ কেটে নিয়ে গেছে। ওই টোকন মীর এ বিদ্যালয়ের সভাপতি থাকাকালে নানাবিধ দুর্নীতি অনিয়ম করে সমালোচনায় আসেন। নিজেরে শ্যালককে নৈশ প্রহরী পদে চাকুরী দিয়েছেন। বিদ্যালয়ের গাছ কেটে নিয়েছেন। বর্তমান কমিটি করার সময় প্রধান শিক্ষকের সাথে যোগসাজোশ করে গোপনে কমিটি করে টোকন মীর ভাইপো মিন্টু কে সভাপতি করেন। একের পর এক বিদ্যালয়ের গাছ কেটে বিক্রি করে অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় জনমনে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান,বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দেয়ার পর নিজেদের বাঁচার জন্য তুলারামপুর এলাকা হতে কয়েকটি গাছের গুড়ি এনে বিদ্যায়লয় চত্বরে রেখে দিয়েছেন। সচেতন এলাকাবাসি গাছচোর প্রধান শিক্ষক,সভাপতি ও তাদের সহযোগিদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। উপজেলা শিক্ষা অফিসার আতিকুর রহমান বলেন,গাছ কাটার ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক তাকে কিছু জানাননি। খোঁজ নিয়ে বে-আইনীভাবে গাছ কাটার প্রমান পেলে ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান। 


সর্বশেষ

আরও পড়ুন