The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১

শিরোনাম
  • চিলমারীতে এক রাতেই তিস্তায় বিলীন ১৫ বাড়ি চিলমারীতে জেলের জালে ধরা পড়ল সাড়ে ১৫ কেজির বোয়াল মাছ বিএনপি সরকারের আমলে রেলের কোন উন্নয়ন হয়নি: রেলমন্ত্রী বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে ক্লাস শুরু ভারী বৃষ্টিপাত ও বন্যায় মধুখালীর সবজি বাজারে আগুন সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা ও সহিংসতার প্রতিবাদে বাগেরহাটে হিউম্যান রাইটস্ ডিফেন্ডার্স ফোরামের মানববন্ধন​​​​​​​ মুরাদনগরে সিএনজি চালক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আরও ৩ জন গ্রেফতার সাম্প্রদায়িক হামলা ও ধর্মীয় সহিংসতার প্রতিবাদে মাভাবিপ্রবিতে মানববন্ধন পাপুয়া নিউগিনিকে হারিয়ে সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ নানা আয়োজনে বাউবি’র ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত
  • ঝিকরগাছায় রাবির সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্রের আত্মহত্যা

    ঝিকরগাছায় রাবির সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্রের আত্মহত্যা
    ছবি: প্রতিনিধি

    যশোর প্রতিনিধি:  যশোরের ঝিকরগাছায় ইমরুল কায়েস পরাগ (২৩) নামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন।  

    বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২ থেকে দুইটার মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে বলে তার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। ইমরুল কায়েস পরাগ যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের বিশেহরি গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।  

    স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে জানা যায়, ইমরুল কায়েস পরাগ একজন মেধাবী ছাত্র ছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি তিনি মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। এছাড়া বিয়েও করেছেন। তার স্ত্রী বর্তমানে পিতার বাড়িতে। পরাগ তার মায়ের কাছে একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা চান। ক্যামেরা দিতে দেরি হওয়ায় তিনি মায়ের উপর অভিমান করেন। গেলরাত ১২টার দিকেও তিনি রাতের খাবার খাননি। রাত দুইটার দিকে তার মা দেখেন তিনি ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

    জানতে চাইলে গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য শহিদুল ইসলাম বলেন, ছেলেটা কেন যে আত্মহত্যা করেছে তা জানতে পারিনি। তবে সে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। তার মা একটি বেসরকারি সংস্থায় (এনজিও) চাকরি করেন। শুনেছি ছেলেটি তার মাকে একটি ক্যামেরা কিনে দিতে বলেছিল। ক্যামেরা দিতে বিলম্ব হওয়ায় অভিমানে সে আত্মহত্যা করতে পারে।

    যোগাযোগ করা হলে ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ঘটনা জানতে পেরে সেখানে থানার এসআইকে পাঠিয়েছি।


    সর্বশেষ

    আরও পড়ুন