The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১

হারের বৃত্তে বার্সেলোনা, মুখ খুললেন পিকে

হারের বৃত্তে বার্সেলোনা, মুখ খুললেন পিকে
ছবি: সংগৃহীত

গত মৌসুমে বার্সেলোনা জেতেনি কোনো শিরোপা। লা লিগায় হয়েছে তৃতীয়। দলের হতশ্রী পারফরমেন্সের পরও টিকে যান রোনাল্ড ক্যোমান। এর মধ্যে বার্সেলোনা ছেড়ে যান লিওনেল মেসি। তাতে মাঠের পারফরমেন্স আরো পড়তির দিকে। লা লিগার সাত নম্বরে বার্সেলোনা। মৌসুমের শুরুতেই শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে ৭ পয়েন্টের ব্যবধান। দলের হতশ্রী পারফরমেন্স ও খেলার ধরনে সমর্থকদের মাঝে অষন্তোষ।

ক্যোমান সরাসরি দলের সামর্থ্য নিয়ে কথা বলছেন সংবাদমাধ্যমে। এরই মধ্যে বলে দিয়েছেন চ্যাম্পিয়নস লীগ ও লা লিগায় শিরোপা জয়ের আশা নেই। বৃহস্পতিবার কাদিজের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর না দিয়েই চলে যান। ক্যোমানের এমন সিদ্ধান্তের কথা জানতো না বার্সেলোনা। এই বিষয়সহ নানা কারণে বার্সা সভাপতি হুয়ান লাপোর্তার সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয়েছে ক্যোমানের। কোচ-সভাপত্বি দ্বন্দ্বে বিরক্ত জেরার্ড পিকে।

দলের দুঃসময়ে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য সকল খেলোয়াড়কে নিজেদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে বললেন কাতালানদের তারকা ডিফেন্ডার জেরার্দ পিকে।

গত ১৬ আগস্ট রিয়াল সোসিয়েদাদকে ৪-২ গোলে হারিয়ে স্প্যানিশ লা লিগার নতুন মৌসুম শুরু করে বার্সা। পরের ম্যাচে অ্যাথলেটিক ক্লাবের সাথে ড্র করলেও ঘুরে দাঁড়িয়ে গেতাফের বিপক্ষে জয় তুলে নেয়। এরপরই শুরু টানা হতাশা। চ্যাম্পিয়নস লিগে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হারের পর গ্রানাডা এবং কাদিজের সাথে ড্র করে রেকর্ড দুইবারের হেক্সাজয়ীরা।

গত রাতে কাদিজর সাথে গোলশূন্য ড্র করার পর মুভিস্টারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পিকে বলেন, ‘এমন একটা পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছি যেটাতে আমরা অভ্যস্ত নই। সভাপতি বদল এবং কোচ ইস্যুতে এ বছর ক্লাবের ওপর অনেক ঝড় যাচ্ছে। মানসিক প্রশান্তির জন্য আমাদের একসাথে সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হবে।’

‘সবাই জিততে চায়। বাজে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার অনেক উপায় আছে। আমরা সবাই অভিযোগ করতে পারি অথবা আমরা আমাদের নিজেদের কাজ করতে পারি। খেলোয়াড়রা এখানে খেলতে এসেছে।’ যোগ করেন পিকে।

হতাশাজনক পারফরম্যান্সের কারণে হেড কোচ রোনাল্ড ক্যোমানের চাকরি হারানোর গুঞ্জন চলছে। এ নিয়ে ক্লাবের সভাপতি হুয়ান লাপোর্তার সাথে দ্বন্দ্ব চলছে ক্যোমানের। পিকে মনে করেন, খেলোয়াড়দের কাজ মাঠে। ক্লাবের অন্যান্য সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব তাদের ওপর র্বতায় না, ‘আসুন আমরা কোনো পক্ষের দিকেই না তাকাই। সবাই প্রেসিডেন্ট এবং কোচ, উভয় পক্ষের সাথেই আছি। খেলোয়াড়রা ক্লাবের গোলমাল নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। এই নিয়ে ভাবতেও চাই না।’