The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

প্রথম ম্যাচের আগে বাংলাদেশকে ‘হুমকি’ দিয়ে রাখলো স্কটল্যান্ড

প্রথম ম্যাচের আগে বাংলাদেশকে ‘হুমকি’ দিয়ে রাখলো স্কটল্যান্ড
ছবি: সংগৃহীত

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দুই প্রস্তুতি ম্যাচে নেদারল্যান্ডস ও নামিবিয়াকে হারিয়েছে স্কটল্যান্ড। টুর্নামেন্টের প্রথম পর্ব শুরুর আগে এ দুই জয় আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে দলটির কোচ শেন বার্গারকে। অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যাটিং লাইনআপ এবং বোলিং বিভাগের গভীরতা থাকায় বাংলাদেশকেও রীতিমতো হুমকি দিয়ে রাখলেন স্কটিশ কোচ।

আগামীকাল (রোববার) বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে বাংলাদেশের বিপক্ষে নামবে স্কটল্যান্ড। ‘বি’ গ্রুপে নিঃসন্দেহে বাংলাদেশই সবচেয়ে শক্তিশালী দল। তবে তাতে ভড়কে যাচ্ছেন না স্কটল্যান্ডের কোচ। তিনি বরং আত্মবিশ্বাস নিয়েই বাংলাদেশসহ গ্রুপের তিন প্রতিপক্ষের মোকাবিলা করতে প্রস্তুত।

টাইগারদের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ক্রিকেটভিত্তিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোকে শেন বার্গার বলেছেন, ‘পাপুয়া নিউগিনি কিংবা ওমান থেকে বাংলাদেশকে আমরা বড় করে দেখছি না।

আমরা জানি, প্রতিটা দলই আমাদের হারাতে চাইবে। তবে আমাদের বিপক্ষেই বাকিদের সবচেয়ে বড় ম্যাচটা খেলতে হবে। আমরা প্রস্তুত এবং তৈরি আছি।’ ফরম্যাটটা টি-টোয়েন্টি বলে হতে পারে যেকোনো কিছুই।

নির্দিষ্ট দিনে নিজেদের সেরাটা দিতে পারলে প্রথম রাউন্ডে গ্রুপের তিন প্রতিপক্ষকেই হারানোর সামর্থ্য স্কটিশদের আছে বলে মনে করেন শেন, ‘সহজ কথা হলো, আমরা জানি নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে পারলে যেকোনো দলকেই ধরে ফেলতে পারব। এটা সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের খেলা বলে, সব দলের মধ্যে ব্যবধানটাও কমে এসেছে।

নিজ দলের শক্তির কথা জানাতে গিয়ে এই দক্ষিণ আফ্রিকান বলেন, ‘আমরা জানি, আমাদের ভাণ্ডারে কী আছে। আমরা নিজেদের সেরাটা দিতে পারলে সব দলকেই হারাতে পারি। হোক না সেটা বাংলাদেশ, ওমান কিংবা পাপুয়া নিউগিনি। তবে সে জন্য আমাদের বর্তমানে বিশ্বাস রাখতে হবে এবং নিজেদের সেরা পারফরম্যান্স করে দেখাতে হবে।’

বিশ্বকাপের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে মাত্র ১২২ রান করেও ৩২ রানের জয় পায় স্কটল্যান্ড। পরের ম্যাচে নামিবিয়ার বিপক্ষে রানে ফেরেন স্কটল্যান্ডের ব্যাটাররা। এবার দলটি স্কোরবোর্ডে ২০৩ রান তুলে ম্যাচ জিতে নেয় ১৯ রানে।

শেনের মতে, এই দুই জয় স্কটিশদের দিয়ে বাড়তি মোমেন্টাম। তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের মতো মানসম্পন্ন দলের বিপক্ষে খেলতে নামার আগে নেদারল্যান্ডস, নামিবিয়া ম্যাচ আমাদের দারুণ মোমেন্টাম এনে দিয়েছে। যা আমাদেরকে চাপ অনুভব করতে এবং কঠিন মুহূর্ত জয় করার শক্তি দিচ্ছে।’