The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

সড়ক ভেঙ্গে বিলীন হওয়ার পথে গ্রামের একমাত্র জামে মসজিদটি

সড়ক ভেঙ্গে বিলীন হওয়ার পথে গ্রামের একমাত্র জামে মসজিদটি
ছবি: প্রতিনিধি

কাইছার হামিদ তুষার, লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি: প্রায় শতবছরের পুরনো পশ্চিম আমিরাবাদ রোকেয়া বর জামে মসজিদ।১৯০৪ সালে গ্রামবাসীর উদ্যোগে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ স্টেশন থেকে ৪ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে নির্মিত হয় মসজিদটি।বেড়া,কাঠ,বাঁশ,মাটি ও সেমি পাকা হিসেবে বিগত শতাব্দীতে কয়েকবার সংস্কার হলেও কালের বিবর্তনে বিভিন্ন ধাপ পেরিয়ে কয়েকবছর আগে গ্রামবাসীর উদ্যোগে প্রায় ৬০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে পূর্ণ সংস্কার হয়ে নান্দনিকতার ছোঁয়া পায় মসজিদটি।

বর্তমান দৃষ্টিনন্দন রোকেয়া বর জামে মসজিদটি এলাকার শতাধিক মুসল্লির দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্নের প্রতিচ্ছবি।এটিই এই গ্রামের একমাত্র জামে মসজিদ।মসজিদের পাশেই এলাকাবাসীর কয়েকশতকের প্রাচীন কবরস্থান।যেটি গত কিংবা আগামী প্রজন্মের শেষ ঠিকানা।

কিন্তু বোয়ালিয়াখালের কয়েকদফা ভাঙ্গনে গ্রামবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্নের এই ইসলাম ধর্মচর্চা কেন্দ্রটি বর্তমানে বিলীন হওয়ার পথে।সেই সাথে ভাঙ্গনের হুমকিতে আছে প্রাচীন গোরস্থানটিও।সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মসজিদের পাশের আমিরাবাদ-গারাঙ্গিয়া সংযোগ সড়কটির কয়েক দফা ভাঙ্গনে মাঝারি আকারের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।দ্রুত সড়কটির সংস্কারে কার্যকর উদ্যোগ না নিলে সীমানা প্রাচীরসহ মসজিদটি ধ্বসে পড়তে পারে।

রোকেয়া বর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোস্তাক আহমেদ বলেন,গ্রামবাসীর অক্লান্ত পরিশ্রমে নির্মিত আমাদের মসজিদটি রক্ষায় দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের মাননীয় সাংসদ ডঃ আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে স্থানীয় ইউপি সদস্য সরপু সিকদার জানান,ভাঙ্গনের অবস্থা খুবই ভয়াবহ।আমি নিজেই ইউএনও মহোদয়কে নিয়ে স্থানটি পরিদর্শন করেছি।প্রকল্পটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে হওয়ায় সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করেছি।আশা করছি দ্রুত দৃশ্যমান সংস্কারের কাজ শুরু হবে। 


আরও পড়ুন